‘আগামী অধিবেশনে পাকিস্তানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন’

1,238

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রাণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধ ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্যের জন্য পাকিস্তান নতি স্বীকার না করলে আগামী সংসদ অধিবেশনে দেশটির সঙ্গে সকল কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করা হবে। পাকিস্তানের নেতিবাচক মন্তব্যে আমাদের কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে। কাজেই তাদের সঙ্গে আর কোনো সম্পর্ক থাকতে পারে না।

 

 

তিনি আরও বলেন, ১৯৭১ সালে আলবদর, আল শামস, বর্বর পাকিস্তানি বাহিনী গণহত্যা, অরাজকতা, ধর্ষণ, লুটপাট শুরু করেছিল। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে এদেশের দেশপ্রেমিক মুক্তিযোদ্ধারা মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে দেশটাকে স্বাধীন করেছিল।

 

শুক্রবারবিকালে নড়াইলের লোহাগড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মুক্তিযোদ্ধা জনতা সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ সব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, জিয়া, এরশাদ ও খালেদা সরকার মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস মুছে ফেলার ষড়যন্ত্র করেছিল। সর্বশেষ ৫ জানুয়ারিতে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হলে দেশটাকে অপশক্তি দখল করে নিতো।

 

লোহাগড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ফকির মফিজুল হকের সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ইসমত কাদীর গামা, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম মুজিবুর রহমান, সদস্য মিয়া মোঃ মুজিবুর রহমান, মুন্সী নজরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিকদার আব্দুল হান্নান রুনু, সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ ফয়জুল আমির লিটু, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার এস এম গোলাম কবীর, লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা মোঃ সেলিম রেজা প্রমুখ।

 

সমাবেশের শুরুতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ডিসপ্লে ও নৃত্য পরিবেশন করেন লোহাগড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এ সময় মুক্তিযোদ্ধা, আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.