আগাম পাঁচ লাখ ভোটে এগিয়ে হিলারি ক্লিনটন…!!!

448

মিনারা হেলেন, নিউ ইয়র্কঃ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে  প্রায় পাঁচ লাখ মানুষের দেওয়া ‘আগাম ভোট’ এ এগিয়ে আছেন ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন।

14741759_1120195231350760_1149988756_n

কেন্দ্র ফেরত ভোটারদের মতামতের ভিত্তিতে একাধিক জরিপ সংস্থা জানিয়েছে, আগাম ভোট ও সর্বশেষ জনমত জরিপেও প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে ৫ পয়েন্টে এগিয়ে রয়েছেন হিলারি।

যুক্তরাষ্ট্রের অধিকাংশ অঙ্গরাজ্যের নাগরিকই কারণ দর্শানোর ভিত্তিতে অথবা কোনো কারণ ছাড়াই ‘আর্লি ভোটিং’ নামে পরিচিত আগাম ভোটে অংশ নিতে পারেন। মার্কিন নির্বাচন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চলতি বছরের নির্বাচনে সম্ভবত ৪০ শতাংশের বেশি মানুষ আগাম ভোটের সুযোগ নেবেন। ২০০৮ ও ২০১২ সালে আগাম ভোট দেওয়া লোকের সংখ্যা ছিল মোট ভোটারের ৩০ শতাংশের বেশি। এ আগাম ভোট ব্যবস্থা গত চারটি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার জয়ের পেছনেও এই ভোটারদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল।
ফ্লোরিডা ও নর্থ ক্যারোলাইনায় আগাম ভোটে সামান্য এগিয়ে রয়েছেন হিলারি। আগাম ভোটের বর্তমান ধারা যদি বজায় থাকে, তাহলে আগামী ৮ নভেম্বর ভোট গ্রহণের আগেই সম্ভবত হিলারি প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হবেন। আগাম ভোট ব্যবস্থার কারণেই রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এই মুহূর্তে নির্বাচন থেকে সরিয়ে দেওয়া সম্ভব নয়।
নারীদের নিয়ে নানা বিতর্কিত মন্তব্য ও যৌন কেলেঙ্কারির জেরে ট্রাম্প প্রবল চাপের মুখে আছেন। এ বিবেচনা থেকে হিলারি ও তার দল নতুন ভোটার তালিকাভুক্তি এবং আগাম ভোট প্রদানের ওপর বিশেষ জোর দিচ্ছেন। ডেমোক্র্যাটরা বিশেষভাবে মনোযোগ দিচ্ছেন ফ্লোরিডা, আইওয়া, ওহাইও ও নেভাদার ওপর। ‘ব্যাটল গ্রাউন্ড স্টেট’ নামে পরিচিত এই অঙ্গরাজ্যগুলোর নির্বাচনী ফলাফলেই নির্ধারিত হবে এবারের প্রেসিডেন্টের ভাগ্য। এদিকে সিএনএন ও ওআরসি পরিচালিত গত অক্টোবরের যৌথ জরিপে দেখা যায়, হিলারি ক্লিনটন ৪৭ শতাংশ এবং ট্রাম্প ৪২ শতাংশ জনসমর্থন পেয়েছেন। চার প্রার্থীর এ জরিপে লিবারটেরিয়ান প্রার্থী গ্যারি জনসন ৭ শতাংশ এবং গ্রিন পার্টির স্টেইন ২ শতাংশ জনসমর্থন পেয়েছেন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.