আমার মা,সেরা মা

669

নিউজবিডিইউএস:মা,কর্মক্ষেত্রের বদৌলতে দেখেছিলাম সন্তানের সাথে সাক্ষাতের জন্য কিছু সময় মৃত্যুঞ্জয়ী হয়ে থাকা এক মায়ের প্রতিক্ষার প্রহর গোনা। সেদিন বুকের ভেতর অস্বস্তিকর একটা যন্ত্রণা অনুভব করেছিলাম, মা তোমাকে ভেবে।FB_IMG_1526238625935

সীমাহীন নির্বুদ্ধিতার বশীভূত হয়ে নিজের জেদ,তীব্র স্বাধীনচেতা স্বভাবের অকল্যাণে তোমার সাথে তাচ্ছিল্যের মতো ব্যবহার,জঞ্জালপূর্ণ যুক্তিতর্ক এবং বিধি নিষেধ অমান্য করার অনুতাপে দহিত আমি।

তোমার কাঁধে মাথারেখে খেয়ালের বশে ছেড়ে আসা শক্ত আশ্রয়টা, আমার করে পেতে চাই মা।আমাকে ক্ষমা করে আজীবন অনুতাপের যন্ত্রণা থেকে পরিত্রাণ দাও জননী আমার।

মন খারাপের কোন এক রাতে, মাইকে ভেসে আসা পবিত্র কনঠের কিছু অমৃত কথামালা, আজ আবারও আমাকে অনুশোচনায় বিদ্ধ করে তিল তিল করে ক্ষয়ে দিচ্ছে প্রতিনিয়ত। সেদিন শুনেছিলাম তোমার পায়ের নীচেই আমার জান্নাত। আরও জেনেছিলাম মায়ের মুখের উচ্চারিত উহ শব্দটাই যথেষ্ট জাহান্নাম অবধারিত হবার জন্য।বুকের ভেতরটা ভেংগেচুরে যাচ্ছে মা।পেছনের গল্পটা প্রতি ক্ষনে ক্ষনে অস্থিরতায় ডুবিয়ে রাখে আজও আমাকে।

সুস্থ জীবনের পাথেয়, গোপন অনুশোচনার যন্ত্রণাবোধ থেকে মুক্তি ও খেয়ালের বশে ছেড়ে আসা সঠিক পথের খোঁজ এবং মহান খোদার রহমতে সিক্ত হয়ে সুন্দর আগামীর স্বপ্নতো আমি দেখতেই পারি তাইনা মা?

মরীচিকার বেড়াজালে একটু একটু করে জমানো পাহাড়সম অপরাধের মেঘ,তওবার কল্যাণে পরিত্রাণ পাবার তীব্রতায়, একান্ত নীরবে জল হয়ে ঝড়েছিলো দুনয়নে অঝোর ধারায় খোদার দরবারে।

যান্ত্রিক জীবনে বাস্তবতার কঠিনতাকে সাথে নিয়ে অবিরাম পথ চলতে গিয়ে আগামীর সম্ভাবনা যখন পথভ্রষ্ট,জীবনটা থমকে যাবার উপক্রম, ঠিক তখন সামনে এসে দাঁড়াও তুমি,মমতাময়ী মা আমার।

তোমার কাছেই শিখেছি আকাশসম বিশালতা দিয়ে কিভাবে জীবনের সকল সংকীর্ণতাকে প্রসারিত করতে হয়।জানো মা,জঞ্জালে ভরা ঘুনে ধরা সমাজের কিছু নষ্ট কীট, যখন তাচ্ছিল্যের সাথে আধুনিকতার কর্ণধার দাবী করে তোমার শেখানো ধর্মীয় অনুশাসনকে কটাক্ষ করে,ঠিক তখন তোমার সমুদ্রের গভীরতার মত মৌনতা আর নীরবতার সমন্বয় আমাকে শীতল রেখে সংঘাত থেকে মুক্ত করে।

অনেকদিন দেখিনি মাগো কিন্তু আমার সকল অস্তিত্ব জুড়ে ধ্রবতারার মতো সর্বদাই বিরাজমান থাকো তুমি।অল্পে তুষ্ট হয়ে জীবনের খেয়া পাড়ি দেয়া,ছোট ছোট সুখ গুলিকে জোড়া দিয়ে বৃহৎ সুখের পথে পাড়ি দেয়ার যে প্রবনতায় মুগ্ধ আমার চারিপাশ, এ-তো তোমার দেখানো শিক্ষার বাস্তব প্রতিফলন।

আজ এত কথা লিখছি বলে খুব অবাক হচ্ছো তাইনা মা?হুটহাট করে খেয়ালের বশে হারিয়ে ফেলা সঠিক পথকে তোমার দোয়ায় খুঁজে পেয়ে, অনুতাপ থেকে পরিত্রাণ লাভের পর যে শক্ত আশ্রয় পেয়েছি মা,তার দীর্ঘস্থায়ীত্বের ভীষন প্রয়োজন।

মনের মাধুরী মিশিয়ে প্রাণখুলে সমস্ত সত্ত্বাকে একত্রিত করে বলছি আজ যা অনেকদিন বলা হয়নি, মা আমি তোমায় ভালোবাসি…. অনেক বেশী… অ- নে- ক…।(এস.এম.এমদাদুর রহমান
,রাজশাহী।)

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.