এই শীতে চকচকে চুল!

1,199

 

শীতে শুধু ত্বক নয়, শুষ্ক হয়ে যায় চুলও। শীতের হাওয়ায় চুল রুক্ষ আর নির্জীব হয়ে পড়ে। এর থেকে চুল বাঁচানোর উপায় কী?

 

সমাধান হাতের নাগালেই …

 

শীতে শুধু ত্বকই নয় শুষ্ক হয়ে যায় চুলও। এই সময় চুলেরও পুষ্টির প্রয়োজন বেশি করে। বীজ ছাড়া অ্যাভোকাডো পেস্ট করে একটি ডিমের সঙ্গে মিশিয়ে নিন। তারপর সেটা চুলে লাগান। ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। তারপর হালকা হাতে মাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার ‍ব্যবহার করুন। চুল খুব শুষ্ক হলে সামান্য মাখন ব্যবহার করে দেখুন। প্রথমে অল্প আঁচে গলিয়ে নিন মাখন। তারপর চুলে লাগিয়ে নিন। কিছুক্ষণ শাওয়ার ক্যাপ লাগিয়ে অপেক্ষা করুন। এরপর শ্যাম্পু করে নিন। চুল ফিরে পাবে সতেজতা। অলিভ অয়েল চুলের জন্য খুবই ভাল। কাচের বাটিতে অলিভ অয়েল নিয়ে সামান্য গরম করুন। কখনওই ফোটাবেন না। তেল লাগিয়ে নিন মাসাজ করে। একটা প্লাস্টিকের ব্যাগে জড়িয়ে নিন চুল। এরপর তোয়ালে জড়িয়ে নিন প্লাস্টিকের ব্যাগের ওপর দিয়েই। ৪৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। শীতে চুলের আরো একটি সমস্যা হলো খুশকি। আমাদের মাথার ত্বকও শরীরের মতোই তৈলাক্ত হতে পারে। তখন দেখা যায় খুশকির প্রভাব। শীতে এই খুশকি প্রকট হয়ে ওঠে। সাদা ভিনিগার এক কাপ ও এক কাপ গরম পানি একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। হালকা হাতে মাথায় মাসাজ করুন। এরপর শুধু পানিতে ধুয়ে ফেলুন চুল। ১৫ মিনিট পর গোসল করে নিন। খুশকি চলে যাবে প্রতি সপ্তাহে ব্যবহার করলে। নিম পাতা বেটে শীতকালে চুলে প্যাক হিসেবে লাগাতে পারেন। অথবা ২ মুঠো নিম পাতা ৫ কাপ জলে সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে স্কালে মাসাজ করে নিন। খুশকির সমস্যা কমবে। চুল তৈলাক্ত হলে তাতে ধুলো জমে বেশি। নিয়মিত শ্যাম্পু লাগান। শ্যাম্পুর সঙ্গে এক চামচ পাতিলেবুর রস ও এক চামচ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন। তৈলাক্ত চুলের সমস্যা দূর হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.