গ্রেটার ওয়াশিংটন বিএনপির স্বাধীনতা দিবসের আলোচনায় স্বৈরশাসন পতনের প্রত্যয়

569

17806989_1293065180730430_1161472983_n 17778897_1293065254063756_2117368334_oনিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশের বর্তমান শাসনকে নব্য বাকশাল ও স্বৈরশাসন আখ্যায়িত করে সরকার পতনের প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে গ্রেটার ওয়াশিংটন বিএনপি। সংগঠনটির এক প্রেস বিজ্ঞপিতে এ তথ্য জানানো হয়। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে গত ২ এপ্রিল ভার্জিনিয়ার ফলচার্চের কাবাব কিং রেস্টুরেন্টে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশী উপস্থিত ছিলেন। সংগঠনের সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শাহাদাত হোসেন সোহরাওয়ার্দির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা ও সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং সংগঠনের সাধারন সম্পাদক এজেএম হোসাইন এবং তাকে সহযোগিতা করেন যুগ্ম সাধারন সম্পাদক তারিকুল ইসলাম অশ্রু ও সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হক। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা বিশিষ্ট সমাজসেবক জহির খান। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ম্যারিল্যান্ড বিএনপির সভাপতি নাছের আহমেদ, জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের নেত্রী ফারহানা রহমান লীনা, সংগঠনের সহ সভাপতি সামছুদ্দীন মাহমুদ, মাসুদুর রহমান, মিয়া মজনু এবং বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা টিএম শহীদুল্লাহ। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ফিরোজ আলম, জাকির আহমেদ, মোহাম্মদ শাহরিয়ার রহমান, ফারুক আহমেদ, নুর মোহাম্মদ, ওয়াহিদ রহমান, জামাল উদ্দিন, আবদুস সবুর জুয়েল প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন মোহাম্মদ হোসাইন, কামাল পাশা, মনির হোসাইন, কাজী এম খোকন, আরজু পাটোয়ারী, লায়েক আহমেদ। প্রধান অতিথি জহির খান বলেন, বাংলাদেশে বর্তমানে কেবল স্বৈরশাসন নয় একনায়কত্ব কায়েম হয়েছে। জনগনের কথা বলার কোন স্বাধীনতা নেই। হত্যা, গুম, খুন ধর্ষণ এমন পর্যায়ে পৌছেছে, যা শেখ মুজিবের সাড়ে তিন বছরের শাসনকালের কথা স্বরণ করিয়ে দেয়। তিনি অবৈধ হাসিনা সরকারের পতনের জন্য সকল ভেদাবেধ ভুলে ঔক্যবদ্ধ আন্দোলনের কথা বলেন। সংগঠনের সাধারন সম্পাদক ও বিশেষ এজেএম হোসাইন তার বক্তব্যে বর্তমান আওয়ামী লীগের দুঃশাসনের বিভিন্ন চিত্র তুলে ধরে বলেন, সম্প্রতি তিনজন বিএনপির নির্বাচিত মেয়রকে বরখাস্ত করা হয়েছে। অবৈধরা নির্বিগ্নে ক্ষমতা দখল করে আছে আর বৈধদের বরখাস্ত করা হয়েছে। এই হল অবৈধ হাসিনার শাসন। তিনি বলেন, জোর করে ক্ষমতা ধরে রাখার ইতিহাস বিশ্বে নেই। শেখ হাসিনাকে এ ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিয়ে দ্রুত পদত্যাগ করে নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রদানের আহবান জানান। বিশেষ অতিথি ফারহানা লিনা অবৈধ হাসিনা সরকারের পতনের জন্য জনতার আন্দোলনের উপর গুরুত্বারোপ করেন। বিশেষ বক্তা সামছুদ্দীন মাহমুদ তার বক্তব্যে ভারতের সংগে আগামী মে মাসে এ সরকারের আরো একটি গোলামী চুক্তির বিষয়ে সতর্ক থাকার আহবান জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে কারো অধীনে থাকার জন্য নয়। প্রয়োজনে আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশের জনগন ভারতের সব চক্রান্ত এবং তাদের দোশরদের প্রতিহত করবে। অন্যান্য বক্তারা শহীদ জিয়ার স্বাধীনতার ঘোষনা এবং তার কর্মময় জীবনের উপর আলোকপাত করেন। বর্তমান আওয়ামী দুঃসাশনের বিভিন্ন সচিত্র প্রতিবেদন এবং ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সরকারকে বাধ্য করার উপর গুরুত্বারোপ করেন। সর্বশেষ নৈশ ভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.