ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ

535

সংগ্রহ খুব বেশি না হলেও, আরব আমিরাতকে ৫১ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। ভারতের কাছে ৪৫ রানের বড় ব্যবধানে হারের পর কোনঠাসা হয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে আরব আমিরাতের বিপক্ষে এই ম্যাচটিতে জেতা ছাড়া কোন বিকল্প ছিল না মাশরাফিদের। কিন্তু টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটসম্যানরা প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেননি। ওপেনিং জুটি ছাড়া সেভাবে ভালো করতে পারেনি কেউ। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ২৭ বলে ৩৬ রান না করলে লজ্জাতেই পড়তে হতো বাংলাদেশকে। অবশেষে দলটি সংগ্রহ করে ৮ উইকেটে ১৩৩ রান। শুরুতে মোহাম্মদ মিথুন ৪৭ রান করেছেন। শেষ দিকে মাহমুদুল্লা ৩৬ রানের হার না মানা ইনিংস খেলে দলের সংগ্রহকে কিছুটা জাতে তুলেছেন।

প্রথম ওভারেই রোহান মুস্তফার ক্যাচ ফেলে দেন সৌম্য সরকার। তবে সফলতা পেতে খুব একটা সময় নেয়নি বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ওভারের তৃতীয় বলেই মোহাম্মদ কলিমকে ফিরিয়ে দেন আল আমিন হোসেন। দলীয় ২৫ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় আমিরাত। আগে দু দফা জীবন পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি রোহান মুস্তফা। দ্বিতীয়বার নিজের বলে নিজেই অসাধারণ ক্যাচ ধরেছিলেন মুস্তাফিজ। তবে শরীরের ভারসাম্য ধরে রাখতে না পারায় সে দফায় বেচে যান মুস্তফা। তবে মাশরাফিকে উঁচিয়ে মারতে গিয়ে সেই মুস্তাফিজের তালুবন্দী হন রোহান মুস্তফা। আউট হবার আগে ১৮ রান করেছিলেন মুস্তফা। ষষ্ঠ ওভারে আমিরাতকে সবচেয়ে বড় ধাক্কাটা দেন বাংলাদেশ দলপতি মাশরাফি বিন মতুর্জা। ইনফর্ম সাইমন আনোয়ারকে মাহমুদউল্লাহর অসাধারণ ক্যাচে পরিণত করেন। সপ্তম ওভারের প্রথম বলে মোহাম্মদ শাহজাদকে ফিরিয়ে দেন বাংলাদেশের ওয়ান্ডার বয় মুস্তাফিজুর রহমান। এবারের এশিয়া কাপে এটি মুস্তাফিজের প্রথম উইকেট। পরের বলে আবার আঘাত হানেন মুস্তাফিজ। সন্দীপ পাতিলকে মাশরাফির ক্যাচে পরিণত করেন এই বোলার।

বাংলাদেশ পরের ম্যাচে ২৮ ফেব্রুয়ারি মুখোমুখি হবে শ্রীলংকার।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.