চলচ্চিত্রে ছবির তিন রূপ

1,401

যেকোনো চরিত্রে সহজ সরলভাবে নিজেকে সাজানোর দক্ষ কারিগর বলা যায় ফারজানা ছবিকে। বিখ্যাত লেখকদের জনপ্রিয় চরিত্রগুলোতে তিনি নিজেকে আঁকতে পারেন একেবারে বাস্তবের মতো করে। এই ছবিকে এবার দেখা যাবে তিনটি ভিন্ন রূপে। বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমকে নিয়ে নির্মিত জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্র রঙের দুনিয়ায় ছবি দর্শকদের সামনে আসবেন তিনটি ভিন্ন বয়স ও ভিন্ন রূপরেখায়। কাহিনীচিত্রে সরলা চরিত্রটির বয়স শুরু হয়েছে ১৭ থেকে, যা শেষ হয় ৬৫-তে গিয়ে।

 

 

ছবিকে দেখা যাবে শাহ আব্দুল করিমের স্ত্রী ‘সরলা’রূপে, যার অনুপ্রেরণায় এবং যাকে সঙ্গীত সাধনার মুর্শিদ মেনে বাউল সম্রাট নিজেকে একজন সাধকরূপে নির্মাণ করতে সক্ষম হয়েছিলেন। কথিত আছে, সরলারূপী মহীয়সী নারী চরিত্র ইতিহাসের পাতায় খুবই সীমিতসংখ্যক। অত্যন্ত ক্ষণজন্মা এই নারী তার জীবনের সব চেষ্টা, সময়, সামর্থ্য ও ভালোবাসায় গড়ে তুলেছিলেন আব্দুল করিমকে।

 

ছবি বলেন, ‘লালন শাহের পর বাউলসঙ্গীতের সবচেয়ে প্রভাব বিস্তারকারী বাউলশিল্পী শাহ আব্দুল করিম, কিন্তু লালন শাহ ও হাছন রাজা; সঙ্গীতের এ দুই মহান সাধককে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ হলেও শাহ আব্দুল করিমকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণের প্রয়াস এই প্রথম। আর এমন একটি চমৎকার প্রচেষ্টায় সরলার মতো অন্যতম অসাধারণ এই চরিত্রে রূপদান করার চেষ্টা করতে পেরে আমি সত্যিই আনন্দিত, কতটা সফল হতে পেরেছি তা দর্শক বলবেন, এই প্রত্যাশায় রইলাম। তরুণ নির্মাতা মোক্তাদির ইবনে ছালামের চিত্রনাট্য এবং পরিচালনায় নির্মিত হচ্ছে চলচ্চিত্র রঙের দুনিয়া। এতে বাউল আব্দুল করিমের তিনটি ভিন্ন বয়সে অভিনয় করেছেন- ফারদিন, আগুন ও খাইরুল আলম সবুজ। আর সরলা চরিত্রে একই সাথে পৃথক তিনটি বয়সে অভিনয় করেছেন ফারজানা ছবি।

 

অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন- স্বাধীন খসরু, ঝুনা চৌধুরী, শিরী বকুল, শানুরাই দেবী শানুসহ প্রায় ২০০ বাউলশিল্পী। আর এই চলচ্চিত্রে ব্যবহৃত হয়েছে বাউল শাহ আব্দুল করিমের প্রচলিত এবং বিলুপ্তপ্রায় অজস্র কালজয়ী গান। সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও গাজীপুরের বিভিন্ন লোকেশনে ছবিটির চিত্রায়নের কাজ চলছে।

 

– বিনোদন ডেস্ক

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.