ট্রাম্পের বিতর্কিত মুসলিম নিষেধাজ্ঞা আদালতে স্থগিত…

430
ড:জাহিদ, নিউইয়র্কঃ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দেওয়া ৭টি মুসলিম অধ্যুসিত দেশের নাগরিকদের সে দেশ ভ্রমণের ওপর বিতর্কিত নিষেধাজ্ঞার ওপর দেওয়া স্থগিতাদেশ দেশটির কেন্দ্রীয় আদালতেও বহাল রেখেছে। এর ফলে ট্রাম্পের দেওয়া বিতর্কিত নির্বাহী আদেশ আর কার্যকর থাকলো না।
unnamed
এর আগে এক নির্বাহী আদেশে ডোনাল্ড ট্রাম্প এই নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও কেন্দ্রীয় একজন বিচারক সে আদেশ স্থগিত করেন।
কেন্দ্রীয় আদালতের তিন বিচারকের প্যানেল সর্বসম্মতভাবে ওই স্থগিতাদেশই বহাল রাখলেন। এর ফলে মুসলিম অধ্যুসিত ইরাক, ইরান, সিরিয়া, লিবিয়া, সুদান ও ইয়েমেন এই ৭টি মুসলিম অধ্যুসিত দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে কোনো বাধা থাকলো না।
বিচারকরা তাদের রায়ে লিখেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে নাগরিকদের জাতীয় নিরাপত্তা ও তাদের নির্বাচিত প্রেসিডেন্টের নীতি নির্ধারণী ক্ষমতা নিয়ে অত্যন্ত আগ্রহ রয়েছে। তবে একই সাথে যুক্তরাষ্ট্রে কারো সফর হবে অবাধ সেটাও এ দেশের নাগরিকরা চায়। যাতে পরিবারগুলো বিচ্ছিন্ন হয়ে না যায়, আর তারা কোনো বৈষম্যের শিকার না হন এটাও নাগরিকদের প্রত্যাশা।
এইজন্য, প্রেসিডেন্টের নির্বাহী আদেশের ওপর দেওয়া স্থগিতাদেশেই বহাল থাকবে।
unnamed (1)
কেন্দ্রীয় আদালতের এই সিদ্ধান্ত ডোনাল্ড ট্রাম্পের নতুন প্রশাসনের জন্য একটি বড় চপোটাঘাত বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। ওভাল অফিস থেকে নির্বাহী আদেশ দিয়ে যেসব কাজ করে ফেলার জন্য ট্রাম্প অনেকটা মুখিয়ে রয়েছেন, সেগুলোর বিষয়ে এখন তাকে ভাবতে হবে।
এদিকে এখনো হাল ছাড়েননি ডোনাল্ড ট্রাম্প। আদালতে শেষ লড়াই পর্যন্ত দেখে নেবেন এমন হুমকিই দিয়েছেন তিনি। কেন্দ্রীয় আদালতের সিদ্ধান্ত জানার পরপরই এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প লিখেছেন- তোমাদের সঙ্গে আদালতেই দেখা হবে, দেশের নিরাপত্তা এখন দারুণ ঝুকিতে। দেশটির বিচার বিভাগ ট্রাম্পের নির্দেশটি পর্যালোচনা করে দেখছে বলে আগেই একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.