তাদের সবাইকে জেলে ভরে রাখা উচিত: জয়

427

নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু হতে না হতেই বিএনপি সহিংসতাও শুরু করেছে। তাদের রাজনৈতিক দল বলা যায় না, তাদের সবাইকে জেলে ভরে রাখা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। বুধবার রাতে তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপি অফিসের সামনে দলটির নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ ও গাড়িতে আগুন দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফেসবুকে এই পোস্ট দেন জয়। পোস্টের সঙ্গে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংঘর্ষের একটি ছবিও জুড়ে দেন তিনি।

image-75763-1533014128

ফেসবুক পোস্টে প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা লেখেন, ‘নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু হতে না হতেই বিএনপির সহিংসতাও শুরু হয়ে গেছে। ঠিক যেভাবে তারা ২০১৩ ও ২০১৫ সালে অগ্নিসন্ত্রাসের মাধ্যমে সাধারণ মানুষদের জীবন্ত পুড়িয়েছিল।

বিএনপিকে কোনো দিক থেকেই আর রাজনৈতিক দল বলা যায় না, তারা একটি সন্ত্রাসী সংগঠন। কানাডিয়ান ফেডারেল আদালতও একই কথা বলেছে একাধিকবার। তাদের সবাইকে জেলে ভরে রাখা উচিত।’

জানা যায়, গতকাল বুধবার বিএনপির নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলটির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কর্মী-সমর্থকদের একটি মিছিল বিএনপি কার্যালয়ে আসার সময় পুলিশ নিষেধ করলে সংঘর্ষ বাধে। ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার এক পর্যায়ে পুলিশের দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা।

ওই হামলা সরকারের নির্দেশে হয়েছে উল্লেখ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘পল্টনে নেতাকর্মীদের ওপর হামলার নির্দেশদাতা ওবায়দুল কাদের’।

অন্যদিকে, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবাইদুল কাদের বলেন, মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে। পুলিশের গাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে। বিনা উসকানিতে পুলিশের ওপর হামলা করে বিএনপি নির্বাচন বানচাল করতে চায়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.