ফোবানা সম্মেলন ২০১৬ হোষ্ট অর্গানাইজেশন বাগডিসি/ফোবান হোষ্ট কমিটি এবং বাকোডিসি’র যৌথ উদ্যোগে ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসের ইতিহাস সৃষ্টি…

258

নিউজবিডি ইউএসডেস্কঃ গত ২০শে আগষ্ট, ২০১৬ শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় ভার্জিনিয়ার স্প্রিংফিল্ডস্থ  “ডেরা” রেষ্টুরেন্টে ফোবানা সম্মেলন ২০১৬-এর হোষ্ট অর্গানাইজেশন বাগডিসি/ফোবানা সম্মেলন হোষ্টকমিটি এবং বাকোডিসি’র যৌথ উদ্যোগে নতুন প্রত্যয় নিয়ে যৌথভাবে ফোবানা সম্মেলনে কাজ করার লক্ষ্যে এক বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বাগডিসি/ফোবানা সম্মেলনের হোষ্ট কমিটি এবং বাকোডিসি’র সকল নেতা-কর্মীবৃন্দসহ ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার বাঙ্গালী কমিউনিটির অনেক সাংগঠনিক কর্মী এবং নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন এই ঐতিহাসিক তাৎপর্যপূর্ন সভায়। সভার প্রারম্ভেই ফোবানা হোষ্ট কমিটির প্রেসিডেন্ট জনাব মোহাম্মদ আলমগীর, কনভেনর জনাব এটিএম আলম এবং সদস্য সচিব, নুরুল আমিন নুরু সবাইকে এই গুরুত্বপূর্ন সভায় স্বাগতম জানান এবং সভায় উপস্থিত হয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়ার জন্য সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। সভা চলাকালীন সকল নেতা-কর্মীদের বক্তব্যে যে বিষয়টি প্রতীয়মান হয় তা হল, ওয়াশিংটন প্রবাসী সকল বাংলাদেশী ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করে ফোবানাকে এবং পাশাপাশি আমাদের সমাজকে প্রগতি ও উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে বদ্ধ পরিকর এবং একতার ভিত্তিতে পথ চলার মাধ্যমেই তা সম্ভব। বাকোডিসি’র নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে বক্তব্য দেয়ার সময় বাকোডিসি’র সভাপতি জনাব কাজী এম, রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক তালহা রহমান এই যৌথ উদ্যোগকে স্বাগতম জানিয়ে আসন্ন ফোবানা সম্মেলনে একাত্মতা ঘোষনা করেন এবং সম্মেলন পরবর্তী ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার বাংলাদেশী কমিউনিটির যে কোন কল্যান মূলক কাজে সহযোগিতা করার পূর্ন আশ্বাস প্রদান করেন। এছাড়া বাকোডিসির পক্ষে বক্তব্য দিতে গিয়ে জনাব এম,জি,এম হোসেন উল্লেখ করেন যে, এই যৌথ উদ্যোগে ত্যাগ স্বীকার করে বাকোডিসি ফোবানার সাথে একাত্মতা ঘোষনা করছে। ফোবানা হোষ্ট কমিটির প্রেসিডেন্ট, জনাব মোহাম্মদ আলমগীর বাকোডিসি’র সকল নেতা-কর্মীকে অভিনন্দন জানান তাদের আয়োজিত অনুষ্ঠান প্রত্যাহার করে, ত্যাগ স্বীকার করে ওয়াশিংটনের প্রবাসী বাঙালিদের বৃহত্তর স্বার্থে ফোবানা হোষ্ট কমিটির সাথে একাত্বতা ঘোষনা করে ফোবানার হাতকে আরও শক্তিশালী করার জন্য। তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন যে, এটা কারো একার বিজয় নয়, এটা কোন ব্যক্তি বা সংগঠনের বিজয় নয়- এটা ওয়াশিংটন বাসী সকল বাংলাদেশীদের বিজয়, আর এই একতার ভিত্তিতেই আমরা আগামীতে আরও অনেক কাজ করতে সক্ষম হবো যদি আমরা একসঙ্গে কাজ করার জন্য এমনিভাবে ঐক্যবদ্ধ থাকতে পারি।

unnamed (1)

একসঙ্গে যৌথভাবে কাজ করে ফোবানা সম্মেলনকে সফল করার জন্য সবাই প্রত্যয় ব্যক্ত করেন এবং শুধু ফোবানাই নয়, ফোবানা পরবর্তী সময়েও এই একতা এবং ঐক্যবদ্ধ সমাজ উন্নয়ন প্রয়াস অব্যাহত রাখার দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন সকল নেতা-কর্মীবৃন্দ। উল্লেখ্য,বাকোডিসি এবং বাগডিসি/ফোবানা হোষ্ট কমিটিরএই যৌথ উদ্যোগের এই প্রয়াস বাস্তবায়নের পেছনে ফোবানার সাইন্স এন্ড টেকনলজি-র চেয়ারপারসন, জনাব ডঃ গোলাম মাওলার বিশেষ অবদান ছিল বলে জানান ফোবানা হোষ্ট কমিটির প্রসিডেন্ট, জনাব মোহাম্মদ আলমগীর।  বাগডিসি/ফোবানা হোষ্ট কমিটি ওয়াশিংটন প্রবাসী সকল বাংলাদেশীদের মধ্যে একতার বন্ধন দৃঢ় করে একটি ইতিহাসের সৃষ্টি করেছে বলে সবাই মনে করেন এবং তা আমাদের সমাজের আগামীর পথচলায় ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে পাথেয় ও অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে। বাগডিসি/ফোবানা হোষ্ট কমিটি এবং বাকোডিসি’র এই যৌথ উদ্যোগকে সানন্দে স্বাগত জানিয়ে তাদের অভিনন্দন জানিয়েছেন ফোবানা এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান, জনাব নাহিদ চৌধুরী এবং এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারী, জনাব আজাদুল হক। তারা ওয়াশিংটন প্রবাসী সকল নেতা-কর্মীদের যৌথভাবে ফোবানার অগ্রযাত্রাকে শক্তিশালী করার জন্য সবাইকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং উত্তর আমেরিকায় অবস্থানরত বাংলাদেশী কমিউনিটির উন্নয় ভাবনায় আগামীতেও ফোবানার সাথে থাকার জন্য অনুরোধ জানান।

unnamed

ওয়াশিংটন প্রবাসী সকল বাংলাদেশী অধিবাসীরা যে  নিজেদের মাঝখানে একতার বন্ধনে আবদ্ধ, এই ঐক্যবদ্ধতার মাধ্যমে তা তারা বিশ্বের সকল বাঙালি সমাজের কাছে তুলে ধরেছেন।এই যৌথ উদ্যোগ সবার মাঝে একতার সেতুবন্ধন তৈরী করতে সক্ষম হয়েছে বলে সবাই মনে করেন।ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে সবাই ব্রতী হয়ে ফোবানার সাথে একাত্বতা ঘোষনা করে যে  অগ্রযাত্রা শুরু করেছেন, তা আগামীতে ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার বাংলাদেশী কমিউনিটির জন্য কল্যান বইয়ে আনবে বলে উল্লেখ করেন জনাব মোহাম্মদ আলমগীর। সভা শেষে সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সভার সমাপ্তি টানা হয়। (প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.