ভয়াবহ তুষার ঝড়ের কবলে ওয়াশিংটন ডিসিসহ ১৮টি রাজ্য

934

জাহিদ রহমান, ওয়াশিংটন ডিসিঃ

 

 

যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলের ওয়াশিংটন ডিসিসহ কমপক্ষে ১৮টি রাজ্যে শুরু হয়েছে ভয়াবহ তুষার ঝড়। এর প্রভাবে ওয়াশিংটন ডিসিতে রেকর্ড পরিমাণ বরফ পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দুপুরের পর থেকে শুরু হয়েছে তীব্র তুষারপাত, যা চলবে রবিবার ভোর পর্যন্ত। সঙ্গে বইছে তুষার ঝড় ও প্রবল বাতাস।

 

এদিকে তীব্র তুষারপাতের কবলে পড়ে নর্থ ক্যারোলাইনা রাজ্যে পাঁচজন এবং টেনেসি রাজ্যে দুই জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। প্রায় সাড়ে ৮ কোটি মানুষ এই বিরূপ আবহাওয়ার কবলে পড়েছেন, যা যুক্তরাষ্ট্রের মোট জনসংখ্যার এক চতুর্থাংশ। এছাড়া বিরূপ আবহাওয়ার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় সবকটি বিমানবন্দরে ফ্লাইট বন্ধ রয়েছে। এ পর্যন্ত সাড়ে ৭ হাজার ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ।

 

একাধিক সূত্র জানায়, নিউইয়র্ক এবং পূর্ব উপকূলীয় অন্যান্য নগরীগুলোও এ ঝড়ের কবলে পড়েছে। ঝড়ের আশঙ্কায় রাজধানীসহ মেরিল্যান্ড, নর্থ ক্যারোলাইনা, জর্জিয়া, পেনসিলভানিয়া ও ভার্জিনিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

 

 

ঝড়ে উত্তর পূর্বাঞ্চলজুড়ে জনজীবন অচল হয়ে পড়ার আশংকা আরো তীব্র হয়েছে। এছাড়া মেরিল্যান্ডের রাজধানী বাল্টিমোরসহ ওয়াশিংটন ডিসি’র মেট্রো এলাকাগুলোতে দুই ফুটেরও বেশি বরফ জমেছে। নিউইয়র্ক সিটি ও লং আইল্যান্ড এবং নিউজার্সিতে ১২ ইঞ্চি (৩০ সেন্টিমিটার) বরফ পড়তে পারে। রাত ১০টার পর থেকে বরফ পড়তে শুরু করে এবং তা রবিবার পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে। শুক্রবার নিউইয়র্কের মেয়র বিল ডি ব্লাজিও এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে নগরবাসীকে শনিবার বাসায় অবস্থান করার আহ্বান জানিয়েছেন।

 

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় পেনসিলভানিয়া এবং ফিলাডেলফিয়ায় ১০ থেকে ১৬ ইঞ্চি (২৫ থেকে ৪২ সেন্টিমিটার) বরফ পড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।দক্ষিণাঞ্চলে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বরফ পড়তে পারে কেনটাকি এবং নর্থ ক্যারোলাইনায়।

 

ঝড়ের সময় মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ২৪ ইঞ্চি পর্যন্ত তুষারপাত হওয়ার পূর্বাভাস দিয়ে মানুষজনকে সতর্ক করে দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। তুষারপাতের কারণে বিদ্যুৎসংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া ছাড়াও রাস্তাঘাট অচল হয়ে যাতায়াত বন্ধ হয়ে যাওয়ারও পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে।

 

 

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিসের পরিচালক লুইস উসেলিনি এ ঝড়কে খুবই বিপজ্জনক বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘অন্তত পাঁচ কোটি লোক এই ঝড়ে দুর্ভোগ পোহাবে।’

 

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে,শনিবার ম্যানহাটনে ঘণ্টায় ৩০ মাইল বেগে বয়ে যেতে পারে ঝড়ো হাওয়া। ওয়াশিংটন এবং বাল্টিমোরে বাতাসের গতিবেগ হতে পারে আরও বেশি।

 

নিউ ইয়র্কের মেয়র বিল ডি ব্লাজিও এ ঝড়কে ‘শীতকালের প্রথম বড় ধরনের ঝড়’ অভিহিত করে লোকজনকে তা মোকাবেলায় প্রস্তত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।ঝড়ের আওতাভুক্ত রাজ্যগুলোতে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সব স্কুল।

 

ভয়েস অব আমেরিকার খবরে বলা হয়েছে,যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিসহ কয়েকটি রাজ্যের বাসিন্দারা প্রবল তুষার ঝড় প্রতক্ষ্য করছেন।আজ দুপুরের পর থেকে শুরু হয়েছে তুষারপাত, যা চলবে রবিবার ভোর পর্যন্ত।সঙ্গে তুষার ঝড় ও প্রবল বাতাস বইছে।

 

আবহাওয়া কর্তৃপক্ষ আশংকা করছে প্রবল তুষারপাতের কারণে রাজধানী শহরটি ৬০ সেন্টিমিটার তুষারেরর নিচে ঢাকা পড়তে পারে। উপকুলীয় এলাকায় বন্যার সম্ভাবনা রয়েছে। ওয়াশিংটনের মেয়র মিউরিয়েল বাওজার আগেই জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন। মেরীল্যান্ড ও ভার্জিনিয়া রাজ্যেও ঘোষণা করা হয় জরুরি অবস্থা। শুক্রবার স্কুল বন্ধ থাকে। কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থাৎ ফেডারেল সরকারের অফিস বন্ধ হয় আজ দুপুরের পরই। ডিসি মেট্রো পাবলিক ট্রানজিট সিস্টেম অর্থাৎ বাস এবং মেট্রো ট্রেন চলাচল বন্ধের মতো বিরল সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে এই প্রাকৃতিক দুর্যোগকে মাথায় রেখে।

 

 

সারা দেশে সাড়ে চার হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে তুষার ঝড়ের সময় বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার আশংকার কথা জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বাসিন্দাদের যথেষ্ট পরিমাণে খাদ্য দ্রব্য ঘরে মজুদ রাখার পরামর্শ আগেই দেয়া হয়েছিল।

 

এপির খবরে বলা হয়েছে ইতিমধ্যেই তেন্নেসী,কেনতাকি এবং নর্থ ক্যারোলাইনায় ঝড় সংক্রান্ত দুর্ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যু ঘটেছে।অধিবাসিদের ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.